☼ সহজ ভাষায় ইলেক্ট্রনিক্স ( ১ ) ☼

936

আজ থেকে চেষ্টা করবো কিছুদিন ইলেকট্রনিক্স নিয়ে নানা তথ্য এবং ধারণা দিতে। আপনাদের সবার অংশগ্রহণ চাই 🙂

◄ যাই হোক আসল কথায় আসি। ইলেকট্রনিক্স নিয়ে জানতে হলে আমাদের একদম মৌলিক কিছু জিনিস জানতে হবে। যেমন: ইলেকট্রন কি, ইলেক্ট্রিসিটি কি, চৌম্বকত্ব বা ম্যাগনেটিজম, বস্তু বা ম্যাটার(matter) কি, ইলেকট্রিক্যাল চার্জ, ইলেকট্রিক্যাল ফিল্ড কি এইসব। আস্তে আস্তে এগুলো নিয়ে ধারণা দিতে চেষ্টা করবো। আপনারাও আমাকে সাহায্য করবেন যদি ভুল করি। আর রেসপন্স দিয়ে। কাউকে কিছু বলার সময় যদি শ্রোতার রেসপন্স না থাকে তাহলে আর মজা পাওয়া যায় না, তাই আপনাদের অনুপ্রেরণা আমার রসদ।

◄ ইলেকট্রন এবং এর চার্জের সাথে আমরা সবাই পরিচিত বলা যায়। ইলেকট্রন পরমাণুর মৌলিক এবং ক্ষুদ্রতম কণিকাগুলোর মাঝে একটি। এটি ঋণাত্মক চার্জে চার্জিত। ইলেকট্রন একটি নির্দিষ্ট কক্ষপথে পরমাণুর চারদিকে ঘুরতে থাকে। পরমাণু হল কোন বস্তুর একদম ক্ষুদ্রতম কণা যা ঐ বস্তুর ধর্ম লালন এবং ধারণ করে। একে আর ভাগ করা হলে আর কোন বস্তুর ধর্ম থাকে না।

☼ ইলেক্ট্রিসিটি বা বিদ্যুৎ হলো আসলে ইলেকট্রনের মুভমেন্ট বা ইলেকট্রনের চলাচল। ইলেক্ট্রন কে এক জায়গা থেকে আর এক জায়গায় যদি সরানো হয় তাহলেই বিদ্যুৎ পাওয়া যায়। কিভাবে সে কথায় পরে আসবো।

◄ ম্যাটার বা বস্তু কি: আমাদের আশে পাশের সব কিছুই বস্তু যা আমরা দেখি কিংবা যার শারীরিক একটা অবস্থা আছে অথবা যা আমরা অনুভব করি। বস্তু ৩ অবস্থায় থাকে। কঠিন, তরল এবং গ্যাস।

◄ ইলেকট্রিক ফিল্ড: ধরেন আপনার বাসায় একজন অতিথি আসলো। তাকে নিয়ে বাসায় একটা আবহ সৃষ্টি হবে তাইনা? তার একটি প্রভাব থাকবে। ইলেকট্রনের ব্যাপারেও এমনটি হয়। একটি ইলেকট্রন যদি কোথাও থাকে তাহলে সেও আশপাশের একটি এলাকায় প্রভাব বিস্তার করে। এর মাঝে অন্য কোন চার্জ আসলে সে তাকে আকর্ষণ অথবা বিকর্ষণ করবে। এটিই ইলেকট্রিক ফিল্ড।

এখন এতটুকু। পরে আরও কিছু লিখব আশা করি।

একটি মজার তথ্য দিই আপনাদের।
☼ ইলেকট্রিক চার্জ আসলে কি জিনিস, মানে এটি আসলে কি ধারণ(consist) করে তা নিয়ে ভালো কোন ধারণা এখনও পাওয়া যায় নি। তবে চার্জের চরিত্র,এটি কি কি জায়গায় কেমন কাজ করে, এর বৈশিষ্ট্য এসব অনেক ভালো করে জানা গেছে। এবং এর উপর ভিত্তি করেই পুরো ইলেকট্রনিক্স। ইলেক্ট্রনিক্স এমন আরও অনেক কিছু আছে। যেখানে আসলে ব্যাপারটি কি জানা নেই কিন্তু এর আচরণ থেকেই সব করা হয়। বিদ্যুৎ কি এটি নিয়েও অনেক কনফিউশন আছে। 😛

লিখাটি নিয়ে আপনার অভিমত কি?

SHARE

1 COMMENT